রোহিঙ্গাদের ফেরাতে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সমঝোতা

রোহিঙ্গাদের ফেরাতে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সমঝোতা
Spread the love

গণহত্যার শিকার হয়ে বাংলাদেশের মাটিতে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরনার্থীদের তাদের নিজ ভূমিতে ফিরিয়ে নিতে সমঝোতায় পৌঁছেছে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার।

 

বুধবার বাংলাদেশ সময় দুপুরে বহুল প্রতীক্ষিত এ চুক্তি সই হলেও এতে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার সময়সীমা উল্লেখ করা হয়নি। তবে আশা করা হচ্ছে আগামী দুই মাসের মধ্যেই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সম্পন্ন হবে।

 

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। মিয়ানমারের রাজধানী নেপিদোতে দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সমঝোতা স্মারক সই করেন।

 

দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

 

দুই মাসের মধ্যে সমঝোতা চুক্তি বাস্তবায়নের প্রক্রিয়া শুরু হবে। তবে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন কত দিনের মধ্যে শেষ হবে তার কোনো সময়সীমা উল্লেখ করা হয়নি। এর আগে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ইস্যুতে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চির সঙ্গে বৈঠক করেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী।

 

নেপিদোতে স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী আলোচনা করেন তারা। বুধবার, দুদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পর্যায়ের দুই দিনব্যাপী বৈঠক শুরু হয়।

 

প্রতিবেশী দুই দেশের প্রতিনিধির মধ্যে ৪৫ মিনিটের এ বৈঠকের পরপরই রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরাতে এ চুক্তি সই হয়। নিজ নিজ দেশের পক্ষে এ চুক্তিতে সই করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী ও সু চির কার্যালয়ের মন্ত্রী কিয়াও টিন্ট সুয়ে।

 

চলতি বছরের আগস্টের শেষে রাখাইনের বিভিন্ন পুলিশ চৌকিতে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার জের ধরে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। তাদের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ, শিশু হত্যা, রোহিঙ্গা বসতিতে অগ্নিসংযোগসহ গণহত্যার অভিযোগ ওঠে।

Share this...
Share on FacebookPrint this pageShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn



Skip to toolbar