শুভ জন্মদিন শাবনূর

শুভ জন্মদিন শাবনূর
Spread the love

বিনোদন প্রতিবেদক:

আজ চলচ্চিত্রের নন্দিত নায়িকা শাবনূরের জন্মদিন। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসে একটি দীর্ঘ সময়দাপটের সাথে একের পর এক সুপার হিট চলচ্চিত্র দর্শককে উপহার দেয়া নায়িকার নাম শাবনূর। বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের ইতিহাসে অমর এক জুটি’র নাম সালমান-শাবনূর। সেই জুটি’র একজন তিনি।

 

যদিও এখন আর চলচ্চিত্রে খুব বেশি নিয়মিত নন তিনি। কিন্তু ভক্তদের কাছে এখনো অনেক শ্রদ্ধা, ভালোবাসা, ভালোলাগার এক নাম শাবনূর। জন্মদিন নিয়ে কোন পরিকল্পনা নেই তার। কারণ তার মা আছেন দেশের বাইরে অস্ট্রেলিয়াতে। মা’কে ছাড়া পরিকল্পনা করে নিজের জন্মদিন উদযাপন করার কোন আগ্রহ নেই শাবনূরের। তবে নিজের কোন পরিকল্পনা না থাকলেও সারাটি দিনজুড়েই নানানভাবে সারপ্রাইজড হয়ে থাকেন জনপ্রিয় এ নায়িকা। বন্ধু’মহল থেকে শুরু করে সহকর্মী, ভক্ত, চলচ্চিত্রের নানান ব্যক্তিত্ব শাবনূরকে জন্মদিনে সারপ্রাইজড দিয়ে থাকেন। হয়তো এবারও ব্যতিক্রম হবে না তার ক্ষেত্রে।

 

নিজের জন্মদিন প্রসঙ্গে শাবনূর বলেন, ‘এই মুহূর্তে আম্মু নেই আমার পাশে। আগের বার অস্ট্রেলিয়াতে আম্মু এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা মিলে জন্মদিন উদ্যাপন করেছি। কিন্তু এবার কেউ পাশে নেই। তাই জন্মদিন নিয়ে কোন পরিকল্পনাও নেই। তাছাড়া কিছুদিন আগে আমি বেশ অসুস্থ ছিলাম। এখনো পুরোপুরি সুস্থ নই। সবমিলিয়েই কোন অনুষ্ঠান করা হচ্ছে না এবার। জন্মদিনে শুধু সবার কাছে দোয়া চাই যেন সুস্থ থাকি, আমার একমাত্র সন্তান আইজেনকে নিয়ে যেন ভালো থাকতে পারি।’

 

প্রয়াত কিংবদন্তী চলচ্চিত্র পরিচালক এহতেশামের হাত ধরেই ‘চাঁদনী রাতে’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে চলচ্চিত্রে শাবনূরের অভিষেক হয়। এমবি ফিল্মস লিমিটেড প্রযোজিত আজিজ মোহাম্মদ ভাই নিবেদিত এই চলচ্চিত্রে শাবনূরের বিপরীতে অভিনয় করেন শাব্বীর। তবে জহিরুল হকের ‘তুমি আমার’ চলচ্চিত্রে সালমান শাহ’র সঙ্গে জুটিবদ্ধ হয়ে অভিনয় করে সালমান শাবনূর জুটি’র শুভারম্ভ হয়।

 

 

শাবনূর জানান, এহতেশাম বেঁচে থাকাকালীন বিরাট আয়োজন করে তার জন্মদিন উদযাপন করা হয়। তাতে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। আর সেই জন্মদিনটিই তার অভিনয়য় জীবনের সেরা জন্মদিন। রাজধানীর বারিধারা এলাকায় অবস্থিত ‘সিডনী ইন্টারন্যাশনাল স্কুল’র দু’জন কর্ণধারের একজন শাবনূর। আরেকজন তারই ছোট বোন ঝুমুর। স্কুল পরিচালনা নিয়েও শাবনূরের রয়েছে যথেষ্ট ব্যস্ততা। নিজের অবস্থান নিয়ে এখনো সন্তুষ্ট শাবনূর।

 

শাবনূর বলেন, ‘আল্লাহর রহমতে চলচ্চিত্রে এখনো যথেষ্ট সম্মান নিয়েই আছি আমি। আমার অভিনয় জীবনের পথচলায় আমার প্রত্যেক চলচ্চিত্রের পরিচালক, প্রযোজক, সিনেমাটোগ্রাফার, কাহিনীকার, প্রোডাকশন বয়, ট্রলিম্যান থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট সবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ। বিশেষ করে আমার বোন ঝুমুরের কথা উল্লেখ করতেই হয়। সবারই সহযোগিতায় আমি আজকের শাবনূর। চলচ্চিত্রের সবাইকে নিয়ে আমি ভালো থাকতে চাই।’

 

মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত ‘দুই নয়নের আলো’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য ২০০৫ সালে তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন। একই পরিচালকের ‘এতো প্রেম এতো মায়া’ চলচ্চিত্রে সুদীপ কুমার দীপের লেখা শ্রী প্রীতমের সুর সঙ্গীতে প্লে-ব্যাক করেছেন। শিগগিরই এর শুটিং শেষ করবেন তিনি।

Share this...
Share on FacebookPrint this pageShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn



Skip to toolbar